Tips and Tricks

জেনে নিন ল্যাপটপ ব্যবহার এর সঠিক বিধিমালা

আমরা অনেক সময়ই নিজেদের অজান্তেই ল্যাপটপ এর অনেক ক্ষতি করে থাকি। সঠিক তথ্যের অভাবে আমরা নিজেরাই ল্যাপটপ এর আয়ু কমাতে থাকি।

এই দুনিয়ার কোন কিছুই চিরস্থায়ী নয়, আর ইলেকট্রনিক জিনিষের তো আরো বেশি করে ভরসা নেই। কিন্তু ঠিকঠাক মতো ইউজ করলে আপনার ল্যাপটপ আরো কয়েক বছর বেশি স্থায়ী হতে পারে। আপনার ল্যাপটপ যদি সময়ের আগেই নষ্ট হওয়ার সিগন্যাল দিতে শুরু করে তাহলে বুঝবেন, আপনার নিজের অজান্তেই কিছু সমস্যা রয়েছে। সঠিক অভ্যাস তৈরি করে ল্যাপটপ ইউজ করলে ল্যাপটপের আয়ু বাড়ানো সম্ভব হবে।

ফ্ল্যাট সার্ফেসে ল্যাপটপ ইউজ করুন

অনেকেই কোলে নিয়ে ল্যাপটপ ইউজ করেন, অনেকেই রয়েছেন যারা বিছানার উপরে ল্যাপটপ ইউজ করেন। এতে ল্যাপটপের ব্যাটারি আয়ু এবং হার্ডওয়্যার আয়ু অনেক গুনে কমে যায়। ল্যাপটপ নরম কোন সার্ফেসে রাখলে এতে ঠিক মতো বায়ু সঞ্চালিত হতে পারে না, কুলিং ফ্যান গুলো ল্যাপটপের হার্ডওয়্যার ঠাণ্ডা করতে পারে না, কেনোনা ভেতরের গরম বাতাস গুলো বাইরে বের হতে পারে না ঠিক মতো।

এভাবে ল্যাপটপের তাপমাত্রা বাড়তে থাকে। ল্যাপটপ যতো গরম হবে প্রসেসর নিজেকে ততোবেশি স্লো করে দেবে ফলে পারফর্মেন্স কমে যাবে। সাথে গরম পরিবেশে ল্যাপটপ ব্যাটারির সম্পূর্ণ বারো বেজে যাবে। বেস্ট সলিউশন হচ্ছে সবসময় ফ্ল্যাট এবং শক্ত সার্ফেসে রেখে ল্যাপটপ ইউজ করা। এতে ল্যাপটপের নিচের দিকের বায়ু সঞ্চালনের রাস্তা গুলো ও ভাল কাজ করার সুবিধা পাবে।

ল্যাপটপের জন্য অনেক ডেডিকেটেড স্ট্যান্ড পাওয়া যায়, সেগুলোকে ল্যাপটপ ঠাণ্ডা রাখার জন্য কুলিং ফ্যান সিস্টেম থাকে, এতে ল্যাপটপ গরম হয় না। এরকম ল্যাপটপ স্ট্যান্ড বিভিন্য দামের মধ্যে পাওয়া যায় বাজারে, ৫০০ টাকা থেকে শুরু করে নানান দামের ল্যাপটপ স্ট্যান্ড কিনতে পাবেন। আমি এই অবহেলা করার ফলে আপনার ল্যাপটপ ব্যাটারি যেখানে পূর্বে ৫-৬ ঘণ্টা ব্যাকআপ প্রদান করতো সেটা এখন ২০ মিনিট ব্যাকআপ দেয়!

ল্যাপটপের ব্যাটারি ০% ডিসচার্জ করবেন না

একটি ব্যাটারি ঠিক কতোবার চার্জ ও ডিসচার্জ হতে পারে তার একটি লিমিট রয়েছে। আপনি যদি বারবার ০% পর্যন্ত ডিসচার্জ করে ফেলেন তারপরে আবার ১০০% পর্যন্ত চার্জ করেন আপনার ল্যাপটপ ব্যাটারির আয়ু ৫০% বার আরো দ্রুত কমে যাবে।

ল্যাপটপ অন করতে না করতেই ইউজ করা শুরু করবেন না

আপনার উইন্ডোজ ল্যাপটপ অন করলেন, পিসি আপনাকে ওয়েক্যাল ম্যাসেজ শো করলো, কিন্তু এর মানে এটা নয় পিসি ইনস্ট্যান্ট ইউজের জন্য রেডি হয়ে গেছে। কিছুটা সময় নিয়ে অপেক্ষা করা উচিৎ, অন্তত যতোক্ষণ মাউস পয়েন্টার থেকে বিজি আইকন সরে না যায়।

ল্যাপটপ অন হওয়ার সাথে সাথেই অনেক বড় কাজের চাপ চাপিয়ে দিলে ল্যাপটপ সেগুলোকে ঠিক মতো প্রসেস করতে পারবে না। কেনোনা সিস্টেম রান করতে প্রসেসরকে প্রথমেই অনেক কাজ করতে হচ্ছে এর মধ্যে নতুন টাস্ক প্রসেসর হ্যান্ডেল করতে নাও পরে, যদি এক্কেবারে সুপার হাই কনফিগ ল্যাপটপ হয় সে কথা আলাদা! এই ভুল করার মাধ্যমে ল্যাপটপ বা অপারেটিং সিস্টেম হ্যাং হয়ে যেতে পারে আর সাথে সফটওয়্যার বা অপারেটিং সিস্টেম নিজেই ক্র্যাশ করতে পারে।

চার্জে লাগিয়েই বেশিক্ষণ ল্যাপটপ ইউজ করলে ব্যাটারি খুলে নিন!

অনেকেই রয়েছেন, যারা ল্যাপটপ বাসাতেই বেশি ইউজ করেন, সেক্ষেত্রে চার্জার সর্বদা প্লাগ করা থাকে ল্যাপটপের সাথে। এতে ব্যাটারি আয়ু কমে যায়। হ্যাঁ, আপনার ল্যাপটপ ব্যাটারিতে ওভার চার্জ প্রোটেকশন রয়েছে, কিন্তু অনেক বেশি সময় ধরে চলা হিট থেকে আপনার ব্যাটারি ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে।

যদি ল্যাপটপ বাসায় চার্জে প্ল্যাগ করেই বেশি ইউজ করেন, সেক্ষেত্রে বলবো ব্যাটারি ৬০-৭০% চার্জ হওয়ার পরে খুলে রেখে দিন। খুলে রাখবেন কোথায় জানেন তো? বেস্ট জায়গা হচ্ছে ফ্রিজের মধ্যে রেখে দেওয়া। ডীপ ফ্রিজে নয় জাস্ট নর্মাল ফ্রিজে রেখে দিতে পারেন। রাখার পূর্বে অবশ্যই ভালো কোন পলিথিন দিয়ে ব্যাটারিটি প্রটেক্ট করে নিতে পারেন, এতে ফ্রিজের পানি থেকে ব্যাটারি দূরে থাকবে! এভাবে বহুদিন ল্যাপটপের ব্যাটারি ভালো রাখা যেতে পারে!

অপারেটিং সিস্টেমকে যত্নে রাখুন

আপনার ল্যাপটপকে ঠিকঠাক রাখার জন্য যে কাজ গুলো গুরুত্বপূর্ণ সেগুলো একটি ভালো অভ্যাস তৈরি করুন। অপ্রয়জনিয় সফটওয়্যার ইন্সটল করা থেকে বিরত থাকুন। যদি সিস্টেমে অকাজের সফটওয়্যার ইন্সটল করা থাকে সেগুলোকে আনইন্সটল করে দিন। নিয়মিত রেজিস্ট্রি ক্লিন করুন, টেম্পোরারি ফাইল গুলো রিমুভ করুন, এসএসডিতে বেশি ডাটা রীড-রাইট করা থেকে বিরত থাকুন। ভালো অ্যান্টিভাইরাস এবং অ্যান্টিম্যালওয়্যার প্রোগ্রাম ইউজ করুন, সেগুলোকে নিয়মিত আপডেটেড রাখুন।

সাথে আপনার উইন্ডোজকে আপডেটেড রাখুন, ভুল করেও আপডেট বন্ধ করে রাখবেন না। যদি উইন্ডোজ ডিফেন্ডার ইউজ করেন সেক্ষেত্রে সেটাকে সব সময় আপডেটেড রাখুন। যদি সম্ভব হয় শুধু অরিজিনাল ড্রাইভার সফটওয়্যার ইউজ করুন। পিসির ড্রাইভার গুলোকে আপডেটেড রাখুন, ক্র্যাক বা প্যাচ করা সফটওয়্যার ইউজ করা থেকে বিরত থাকুন এবং নিয়মিত ভাইরাস ও ম্যালওয়্যার স্ক্যান করুন।

সরাসরি রোদে ল্যাপটপ ইউজ করবেন না

অনেক সময় ল্যাপটপ বাইরে ইউজ করার দরকার পরতে পারে, কিন্তু সেটাকে সরাসরি রোদে রেখে ইউজ করা উচিৎ নয়। এতে আপনার পিসি অনেক দ্রুত গরম হয়ে যাবে ফলে ব্যাটারি লাইফ কমে যাবে ও পারফর্মেন্স ডাউন হয়ে যাবে। এমন জায়গায় ল্যাপটপ রাখবেন না যেখানে অনেক ধুলো রয়েছে, এতে ল্যাপটপের বায়ু সঞ্চালনের পথে ধুলো ময়লা ল্যাপটপে প্রবেশ করতে পারে।

সরাসরি সূর্যের আলো ল্যাপটপের স্ক্রীনে লাগতে দেবেন না, এতে ল্যাপটপ স্ক্রীন নষ্ট হয়ে যেতে পারে। সূর্যের আলোতে সরাসরি ল্যাপটপ স্ক্রীন এক্সপোজ করলে বেশির ভাগ সময়ই স্ক্রীনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। আর হ্যাঁ ল্যাপটপ স্ক্রীন মোছার সময়ে যেকোনো কাপড় বা টিস্যু পেপার ইউজ করবেন না। এতে ল্যাপটপের স্ক্রীনের উপরে দেওয়া কোটিং নষ্ট হয়ে যেতে পারে। শুধু বাইরে নয়, বাসার মধ্যেও এমন জানালার পাশে ল্যাপটপ রাখবেন না যেখানে রোদের তীব্রতা রয়েছে। ল্যাপটপ স্ক্রীন পরিষ্কার করার জন্য মাইক্রো ফাইবার কাপড় ইউজ করুন।

Dollar Buy Sell Web Site Make

DoridroTech

Get all Tech News, Freelancing Tips, Computer Tips, Earn Money Online Tips in Bangla, Latest Tech News of Bangladesh, Domain Registration, Web Hosting, Web Design and Development.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Domain & Hosting Service
Back to top button
Wait 15 seconds after Subscribe

Subscribe Youtube Channel before Download this File

DoridroTech

Open chat
1
Hello 🙄
Can we help you?